Thursday, May 30, 2024


নাপা খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু। তদন্তে ঔষধ প্রশাসন।

স্টাফ রিপোর্টারঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে সিরাপ খেয়ে মোহাম্মদ ইয়াসিন খান (৭) ও মুরসালিন খান (৪) নামের দুই ভাইয়ের মৃত্যুর বিষয়টি তদন্ত…

By স্টাফ রিপোর্টার , in Uncategorized , at March 13, 2022

স্টাফ রিপোর্টারঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে সিরাপ খেয়ে মোহাম্মদ ইয়াসিন খান (৭) ও মুরসালিন খান (৪) নামের দুই ভাইয়ের মৃত্যুর বিষয়টি তদন্ত শুরু করেছে ঢাকার ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর। আজ রোববার দুপুরে অধিদপ্তরের ছয় সদস্যের তদন্ত কমিটি আশুগঞ্জ উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের নজরপাড়া গ্রামে পৌঁছে দুই শিশুর স্বজনদের সঙ্গে কথা বলেন তারা।

ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আকিব হোসেন তদন্ত কমিটির প্রধান। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন  ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর (DGDA)’র দুজন উপপরিচালক, দুজন সহকারী পরিচালক ও একজন পরিদর্শক। তাঁরা দুই শিশুর মা লিমা বেগম, দাদি নিলুফা বেগম ও চাচা উজ্জ্বল মিয়ার সাক্ষ্য নেন।

তদন্ত কমিটির প্রধান মো. আকিব হোসেন গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, যে ওষুধ নিয়ে কথা উঠেছে, সেটি ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। ওই ওষুধের পরীক্ষাও শুরু হয়ে গেছে। ওই ওষুধের অন্যান্য ব্যাচ উদ্ধার করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। সব ধরনের ওষুধের তদন্ত ঔষধ প্রশাসন করে না এবং করার ক্ষমতাও রাখে না। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ ক্ষমতা প্রয়োগ করে প্রকৃত ঘটনা উদ্‌ঘাটনের চেষ্টা চলছে।

আকিব হোসেন বলেন, ‘দুই শিশুর দাদি, মা ও চাচার বক্তব্য নিয়েছি। সিরাপের বোতলের মুখের অংশের অর্ধেক পরিমাণ করে দুই শিশুকে খাওয়ানো হয়েছে। এর ১০ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যে তারা অসুস্থ হয়ে পড়ে। বিষয়টি নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করব। ওষুধের মধ্যে কী এমন উপাদান ছিল যে সেবনের ১০-১৫ মিনিটের মধ্যে প্রতিক্রিয়া করল, এটা আসলে রহস্যজনক। এ রহস্য উদ্‌ঘাটন করতে হয়তো সময় লাগবে। যেখানে ওষুধ প্রস্তুত করা হয়েছে, সেখানেও একটি বড় দল পাঠানো হয়েছে।’

পুলিশ ও দুই শিশুর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার থেকে দুই ভাই মুরসালিন ও ইয়াসিনের জ্বর। স্থানীয় বাজারের একটি ফার্মেসি থেকে সিরাপ কিনে তাদের খাওয়ানো হয়। পরে ওই রাতেই তাদের মৃত্যু হয়। ইয়াসিন দুর্গাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। ঘটনার পরদিন ওই ফার্মেসি থেকে একই রকম আরেকটি সিরাপ পরীক্ষার জন্য পাঠিয়ে দোকানটি সিলগালা করে দেওয়া হয়।

Also Read: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সিরাপ খেয়ে দুই শিশুর মৃত্যু, নমুনা সংগ্রহের নির্দেশ

দুই শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের তদন্ত কমিটির পাশাপাশি আরও দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এর একটি করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয় থেকে এবং আরেকটি করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের পক্ষ থেকে। এ ছাড়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জন কার্যালয় আশুগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নুপুর সাহাকে প্রধান করে তিন সদস্যের আরেকটি পরিদর্শন কমিটি করেছে।এদিকে সুশীল সমাজের অনেকেই প্রশ্ন ছুরে দিয়েছেন ঔষধ প্রশাসন এর এই তদন্তে কি আসল রহস্য বের হবে ? নাকি তদন্ত কমিটির তদন্ত পর্যন্তই শেষ হয়ে যাবে কারন তদন্ত কমিটির প্রদান যিনি তার বৈশিষ্ট্যই নাকি রহস্য জনক।